বিখ্যাত কিছু উপন্যাসের উক্তি, Selected quotes from  famous novels in Bengali


আমাদের আজকের এই পোস্টটির মধ্য দিয়ে আমরা বিখ্যাত কিছু উপন্যাসের উক্তি তুলে ধরব। বর্তমান সময়ে বেশিরভাগ মানুষ সামাজিক মাধ্যমেই বিভিন্ন বিষয় নিয়ে নিজের মনোভাব তুলে ধরার চেষ্টা করে, তাই আপনাদের মধ্যে যারা এই বিষয় নিয়ে স্ট্যাটাস, ক্যাপশন, উক্তি, ছন্দ ইত্যাদি খোঁজ করে থাকেন তারা এই পোস্টে থাকা লেখাগুলো খুব সহজেই সংগ্রহ করে নিতে পারবেন। আশা করছি এই উক্তিগুলো পাঠকদের পছন্দ মতন হবে এবং বিভিন্ন সময়ে ব্যবহার করার যোগ্য হবে।

বিখ্যাত কিছু উপন্যাসের উক্তি

বিখ্যাত কিছু উপন্যাসের সেরা উক্তি, Best lines from Bengali novels

  • শাসন শুনতে যতই খারাপ লাগুক, যে মানুষের জীবনে শাসন করার মানুষ না থাকে তার মত অভাগা আর কে আছে।
  • ঈশ্বর মানুষকে চরম শাস্তি দেন যখন তিনি তাকে নিঃসঙ্গ করেন।
  • ভালোবাসা হলো সকালের মত। স্বার্থর লম্বা ছায়া সূর্য ওঠা মাত্র ছোট হতে আরম্ভ করে। সূর্য যখন মাথার উপর তখন ছায়া পায়ের তলায়। ভালোবাসার পূর্ণতা তখনই হয়ে যায়। তারপর যত বেলা গড়ায়, ছায়া লম্বা হয়, তত ভালোবাসার আয়ু ফুরিয়ে আসে। পৃথিবীতে সবকিছুর মত ভালোবাসার আয়ু বড় ক্ষণস্থায়ী।
  • যে ভালবাসে, তাহাকে ঘৃণা করার অপবাদ দেওয়ার মত গুরুতর শাস্তি আর নাই, এ কথা ভালবাসাই বলিয়া দেয়।
  • ভালোবাসার মৃত্যুর পরে বেঁচে থাকা অর্থহীন।
  • বাঙালির সব শেষে আশ্রয় রবীন্দ্রনাথ।
  • মানুষ ভুলে যেতে বড় ভালেবাসে।
  • অপরাধ যদি কিছু করিয়াই থাকি তো সে তাঁর কাছে। সে দন্ড তিনিই দিবেন; কিন্তু নির্বিচারে যে-কেহ শাস্তি দিতে আসিবে, তাহাই মাথা পেতে লইব কিসের জন্যে?
  • ‘ শেষরাত্রের শীতে সে যেন ঠান্ডা জল হইয়া যায় প্রতিদিন। যে পাশে শুইয়া থাকি, শরীরের গরমে সে-দিকটা তবুও থাকে এক রকম, অন্য কাতে পাশ ফিরিতে গিয়া দেখি বিছানা কনকন করিতেছে সে-পাশে মনে হয় যেন ঠান্ডা পুকুরের জলে পৌষ মাসের রাত্রে ডুব দিলাম ‘
  • একখানি ছােট ক্ষেত আমি একেলা, চারিদিকে বাঁকা জল করিছে খেলা। 
  • “ মানুষের জীবনে মাঝে মাঝে রহস্যময়তা নামে এবং কখনও কখনও রোমাঞ্চ তাকে স্পর্শ করতে চায়। এগুলো কখনও প্রত্যাশিত থাকে না কিন্তু যৌবনের যাত্রারম্ভে এগুলো তৈরী হয় কখনও কল্পনায় কখনও বাস্তবে। বয়স কম বলেই হয়তো এবং অভিজ্ঞতা কম বলেই হয়তো আমরা যৌবনের কিছু লীলা চাঞ্চল্যকে রোমাঞ্চ বলে মনে করি এবং রহস্যময়তা এসেছে বলে উৎফুল্ল হই। ”
  • গগনে গরজে মেঘ, ঘন বরষা। কুলে একা বসে আছি, নাহি ভরসা। 
  • জীবন বড় মধুময় শুধু এইজন্য যে, এই মাধুর্যের অনেকটাই স্বপ্ন ও কল্পনা দিয়া গড়া। হোক না স্বপ্ন মিথ্যা, কল্পনা বাস্তবতার লেশশূন্য; নাই বা থাকিল সবসময় তাহাদের পিছনে স্বার্থকতা; তাহারাই যে জীবনের শ্রেষ্ঠ সম্পদ, তাহারা আসুক, জীবনে অক্ষয় হোক তাহাদের আসন; তুচ্ছ স্বার্থকতা, তুচ্ছ লাভ।
  •  নীল নবঘনে আষাঢ় গগণে, তিল ঠাই আর নাহিরে। ওগাে, আজ তােরা যাসনে ঘরের বাহিরে (আষাঢ়) – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর 
  •  “ চমৎকার মেয়েগুলি সব এমন- এমন জায়গায় থাকে যে,ইচ্ছা করলেই হুট করে এদের কাছে যাওয়া যায় না। দূর থেকে এদের দেখে দীর্ঘনিঃশ্বাস ফেলতে হয় এবং মনে-মনে বলতে হয়—আহা,এরা কী সুখেই না আছে! ”
  • ‘ঠাই নাই, ঠাই নাই, ছােটো এ তরী, আমারি সােনার ধানে গিয়াছে ভরি।

https://bongquotes.com/best-quotes-on-present-day-in-bengali/

বিখ্যাত কিছু উপন্যাসের সেরা উক্তি

বিখ্যাত কিছু উপন্যাসের উদ্ধৃতি, Quotations from some famous Bangla novels

  • “ মানুষ প্রায়ই পুরনো কথা ভুলে যায়। সে বর্তমানে সঙ্গতি সন্ধান করতে গিয়ে শুধু মুহূর্তের মধ্যে সঞ্চরণ করে কিন্তু যখন কর্মের দায়ভাগ কমে আসে, যখন অবশের বিস্তার স্বল্প থেকে ক্রমান্বয়ে বিপুল হতে থাকে তখন একমাত্র স্মৃতির সঞ্চয়গুলোই আমাদের বাঁচিয়ে রাখে। এ সঞ্চয়ের কোন অবক্ষয় নেই। ”
  • “ বিশ্ববিদ্যালয় ছেড়ে কর্মজীবনে প্রবেশ করতে আগ্রহ যেমন জাগে তেমনি শংকাও জাগে। সকল দায়দায়িত্বমুক্ত নিশ্চিন্ত উন্মুক্ততার পর একটি বন্ধনদশার নিপীড়ন আছে তেমনি আবার নিজস্ব অঞ্চল নির্মাণের আনন্দও আছে। ”
  • “ জীবনের মুক্ততার পর একটু বন্ধন আমরা সবাই মেনে নেই। একজন ইংরেজ কবি লিখেছেন যে বিয়ের বাক্যটি আকাঙ্ক্ষার সমুদ্রের মধ্যে একটি দ্বীপের মত। দ্বীপে দ্বীপে ঢেউয়ের ধাক্কা লাগে, শরীর কেঁপে ওঠে অন্ধকারে ভাসমান নৌকার মত। একটি নতুন সময়ের লীলায় জীবনে পরিবর্তন আসে। ”
  • একজনের উচ্ছ্বসিত অকপট প্রশংসার মধ্যে যে আর একজনের কত বড় সুকঠোর আঘাত ও অপমান লুকাইয়া থাকিতে পারে, বক্তা ও শ্রোতা উভয়ের কেহই বোধ করি তাহা মুহূর্তকাল পূর্বেও জানিত না।
  • প্রেম করা যায় তাকে বিয়ে করতে নেই? অসম্ভব। 
  • বয়স অভিজ্ঞতা এবং শিক্ষা মানুষকে উদার করে। উদারতা অনেক সময় মান অপমান বোধকে চালিত করে।
  • যোগ্য অযোগ্য তো বিচারের কথা বাবা, তাকে ক্ষমা বলা চলে না। তা ছাড়া ক্ষমার ফল কি শুধু অপরাধীই পায়, যে ক্ষমা করে, সে কিছুই পায় না বাবা?
  • জীবন থেকে নাটক তৈরি হয় কিন্তু অনেক সময় জীবন নাটককে ছাপিয়ে যায়।
  • তুমি পথিক, পথ তোমার। সেই পথ রাজা তৈরি করেছেন না কোন অসৎ ধনীর টাকায় তৈরি হয়েছে তা তো তোমার জানার কথা নয়। পথিকের কাজ পথ ধরে লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে যাওয়া।
  • নদী তো একই থাকে, আকাশ পাল্টায়। পাল্টায় বলেই নদীর জলকে এক এক সময় এক এক রকম দেখায়।
  • বিয়ে ছাড়া কি মেয়েদের কোন কিছুতেই পূর্ণতা নেই? একটি মানুষের অনেক কাজ থাকে, সেই কাজে আনন্দ আসে সার্থক হলে, সেই সার্থকতার জন্য কি বেঁচে থাকা যায় না!
  • আমাদের এখানে মেয়েরা বিয়ে করে না, তাদের বিয়ে দেওয়া হয়।
  • এই যে আমি তোমাকে দেখছি, দেখে মন ভরে যাচ্ছে, না দেখতে পেলে বুক টনটন করে, বেঁচে থাকাটা বিবর্ণ হয়ে যায়। এই অনুভূতি কি ভালোবাসা নয়?
  • মানুষ ‘ঘর ঘর’ করে গলা শুকায়। একখানা ঘর আর কতখানিই বা আশ্রয় দেয় মানুষকে, যদি না ঘরের লোক আপন হয়।
  • জীবন কখনই একটা জায়গায় সমানভাবে বয়ে যায় না।
  • ছুরি দিয়ে কেটে-কেটে জীবনটাকে বিশ্লেষণ করার মতো প্রবৃত্তি না হলেও, জীবনের ক্ষণস্থায়ী মুহূর্তগুলো, টুকরো টুকরো ঘটনাগুলো স্মৃতি হয়ে দেখা দেয় মনে। সেখানে আনন্দ আছে, বিষাদ আছে। ব্যর্থতা আছে, সফলতা আছে, হাসি আছে, অশ্রু আছে।
  • ছেঁড়া পদ্ম আর ভাঙা বাঁশি। বাঁশির সুরেই কি পদ্মের জন্ম হয়? একজোড়া পদ্ম তবে ভেসে যায় দরিয়ায়।এক বুকঝিম করা ভালোবাসা নিয়ে পানি বহে যায়, দরিয়ায়। দরিয়ায় সবকিছু ডুবে যায়, মানুষের মনে কিন্তু কিছুই ডোবে না। সব ভেসে রয়।

https://bongquotes.com/famous-quotes-of-pandit-jawaharlal-nehru-in-bengali/

বিখ্যাত কিছু উপন্যাসের উদ্ধৃতি

বিখ্যাত কিছু উপন্যাসের সুনির্বাচিত উক্তি, Unforgettable quotes from some famous novels

  • ছেলেদের সঙ্গ মানেই একটা গোপন পাপ যা করার জন্যে কিছু মেয়ে চাপা উৎসাহ বোধ করে।
  • ছাত্ররা চিরকালই সরকার বিরোধী হয়।
  • “আজ যদি স্মৃতিভ্রষ্ট হই, কি করে বুঝবো যে তুমি রিয়া? বস্তুর চতুর্থ মাত্রা হলো সময়। আইনস্টাইন বলেছিলেন। কিন্তু বস্তুর আরো কত মাত্রা আছে।পঞ্চম মাত্রা হলো স্মৃতি, নইলে বুঝবো কি করে কোনটা কী? ষষ্ঠ মাত্রা হলো ইমাজিনেশন, পারসোন্যাল ভিশন। চারদিকে এই যে এত বস্তুপুঞ্জ দেখছো, সে সবই আমাদের কল্পনার রঙে রঙিন। নইলে কিছুই নয়।”
  • “জীবন বড় মধুময় শুধু এইজন্য যে,এই মাধুর্যের অনেকটাই স্বপ্ন ও কল্পনা দিয়া গড়া।হোক না স্বপ্ন মিথ্যা, কল্পনা বাস্তবতার লেশশূন্য;”
  • জীবন মানেই সুখের স্মৃতি বয়ে বেড়ানো, বেঁচে থাকা মানেই দুঃখের সঙ্গে অজান্তেই সহবাস করা। অবিমিশ্র সুখ মানুষের ভাগ্যে কখনোই লেখা হয় না। সুখ বাঁচিয়ে রাখতে সবচেয়ে বেশি অস্বস্তি অনুভব করে মানুষ। যে কোনো ছলছুতোয় সে দুঃখকে ডেকে নিয়ে আসে। সুখের চেয়ে দুঃখের সঙ্গে বাস করতে মানুষ বড় আরামবোধ করে, কারণ অতি সুখে হাহাকার থাকে না। সন্দেহ, জ্বালা অথবা নিজেকে বঞ্চিত ভাবার যন্ত্রণা পাওয়া যায় না।
  • পৃথিবীর কোনো মানুষই জানে না কোথায় সে পৌঁছাতে চায়। শুধু জানে, বহুদুর যেতে হবে। এইটুকু।
  • বড় উচাটন হয়ে ওঠে মন। কোথায় কোন দুর্গম প্রান্তর, পাথুরে জমি, চড়াই-উতরাই ভেঙে যেতে হবে তার তো কোন ঠিক নেই। কোন দিক থেকে সংকেত ভেসে আসছে, তা সে জানেও না ভালো মতো। শুধু তার পালে সেই পাহাড়-ছোঁয়া বাতাস এসে লাগে। বলে, উজানে যাও, উজানে যাও।
  • জ্ঞানে প্রেমে অনেক প্রভেদ। জ্ঞানে আমাদের ক্ষমতা বাড়ে, প্রেমে আমাদের অধিকার বাড়ে। জ্ঞান শরীরের মত, প্রেম মনের মত। জ্ঞান কুস্তি করিয়া জয়ী হয়, প্রেম সৌন্দর্য্যের দ্বারা জয়ী হয়। জ্ঞানের দ্বারা জানা যায়, প্রেমের দ্বারা পাওয়া যায়। জ্ঞানেতেই বৃদ্ধ করিয়া দেয়, প্রেমেতেই যৌবন জিয়াইয়া রাখে।
  • মানুষের জীবনে এমন সব অদ্ভুদ ঘটনা ঘটে তা উপন্যাসে ঘটাতে গেলে পাঠকরা বিশ্বাস করতে চাইবে না, হেসেই উড়িয়ে দেবে।
  • লালসা যখন মাত্রা ছাড়িয়ে যায়, যখন পুরুষের মানসিক বিকৃতি পূর্ণ করতে নারী স্বেচ্ছায় অথবা বাধ্য হয়ে সহযোগিতা করে তখন কোণারকের মন্দিরে গায়ে শৃঙ্গারত মূর্তিগুলোও লজ্জিত হবে।
  • জন্মিলে মরিতে হয়,
    আকাশে প্রস্তর নিক্ষেপ করিলে,
    তাহাকে ভূমিতে পড়িতে হয়,
    খুন করিলে ফাঁসিতে যাইতে হয়,
    চুরি করিলে কারাগারে যাইতে হয়,
    তেমন ভালোবাসিলে কাঁদিতে হয়—-
    অপরাপরের মতো ইহাও একটি জগতের নিয়ম।
  • মানুষ বড় দুঃখের সঙ্গী চায় কিন্তু অপমান হজম করতে হয় একা, নিজের মতন করে।
  • বেশির ভাগ মানুষেরই অভ্যাস হল, যেখানে বলার কথা কিছু নেই, সেখানেও অকারণে কথা বলে যায়, প্রয়োজন থাক বা না থাক।
  • ´বনের ফুল যারা ভালোবাসে না, সুন্দরকে চেনে না, দিক বলয় রেখা যাহাদের কখনো হাতছানি দিয়ে ডাকে নাই, তাহাদের কাছে এই পৃথিবী  ধরা দেয় না কোন কালেই।’
  • প্রেম গোপন রাখাতে যে গভীর আনন্দ আছে তার থেকে আমি তাকে বঞ্চিত করতে যাব কেন? শুনেছি প্রথম গর্ভধারণ করে বহু মাতা সেটা যত দিন পারে গোপন রাখে। নিভৃতে আপন মনে সেই ক্ষুদ্র শিশুটির কথা ধ্যান করতে করতে সে চলে যায় স্বর্গলোকপানে, যেখান থেকে মুখে হাসি নিয়ে নেমে আসবে এই শিশুটি। 
  • প্রেমের স্বীকৃতি না পাওয়া পর্যন্ত বোধ হয় শেকড় মনের গভীরে ছড়িয়ে পড়ে না।
  • মৃত্যু মুক্তি দেয় না যাহাকে প্রেম তার মহামুক্তি।—নতুন শরীর মুক্তি নয়, মুক্তির আভাষ।
  • “কত স্বপ্ন তো সে দেখেছে জীবনে— অত সুস্পষ্ট ছবি স্বপ্নে সে দেখেনি কখনো— এমন গভীর রেখাপাত করেনি কোনো স্বপ্ন তার মনে।
    সব মিথ্যে! তাকে যেতে হবে পাটের কলে চাকরি করতে। তাই তার ললাট-লিপি, নয় কি?”
  • বাঙালিদের মদ লুকেবার সহজাত প্রবণতা আছে।
  • শত্রুর মিলনে মনে অতি কষ্ট হয়
    বন্ধুর বিচ্ছেদে কষ্ট হয় সাতিশয়।
    উভয়েই বহু কষ্ট দেয় যদি মনে
    শত্রু মিত্রে কিবা ভেদ তবে এ ভুবনে?
বিখ্যাত কিছু উপন্যাসের সুনির্বাচিত উক্তি

শেষ কথা, Conclusion 

আমরা চেষ্টা করেছি আজকের এই পোস্ট দ্বারা বিখ্যাত কিছু উপন্যাসের উক্তি আপনাদের কাছে তুলে ধরার। আশা করি আজকের এই পোস্ট ভালো লেগেছে। এই পোস্টটি যদি আপনাদের মনোগ্রাহী হয়ে থাকে, তাহলে অবশ্যই আপনার আত্মীয়পরিজন ও বন্ধুদের সাথে শেয়ার করে নিতে পারেন। এরূপ আরো পোস্ট পাওয়ার জন্য নজর রাখুন আমাদের এই ওয়েবসাইটে।

Recent Posts