বাংলাদেশ সম্পর্কে ৩০ টি অজানা তথ্য ~ Bangladesh Facts and History in Bengali


নমস্কার বন্ধুরা, আপনাদের মধ্যে অনেকেই বাংলাদেশ সম্পর্কে কম বেশি অনেক কিছুই জানেন তবুও যেন এই সুন্দর দেশটি সম্পর্কে মানুষ অনেক কিছু জিনিসই জানেন না। তাই এই পোষ্টিটর মধ্যে আমরা বাংলাদেশ সম্পর্কে কিছু দারুন তথ্য শেয়ার করবো আপনাদের সাথে যা জনস্বার্থে আপনারা শেয়ার করতে পারেন।

বাংলাদেশের কিছু দারুন তথ্য

আমাদের ইউটুবে ভিডিওটিও দেখে নিতে ভুলবেন না বন্ধুরা।

বাংলাদেশের অজানা তথ্যগুলি ~ Facts about Bangladesh

বাংলাদেশের প্রতিষ্টা

পূর্ব পাকিস্তান ১৯৭১ এ স্বাধীন রাষ্ট্র বাংলাদেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৪৭ সালে ব্রিটিশ ভারত বিভক্ত করে দুটি স্বাধীন রাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠা হয়, ভারত ও পাকিস্তান। পাকিস্তানের দুটি ভাগ হয় পূর্ব পাকিস্তান এবং পশ্চিম পাকিস্তান। পূর্ব পাকিস্তান গঠিত হয়েছিল প্রধানত পূর্ববঙ্গ নিয়ে যা বর্তমানের বাংলাদেশ।

ভৌগোলিক অবস্থান

 বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার একটি সার্বভৌম রাষ্ট্র, ভৌগোলিক অবস্থানগত দিক থেকে যার পশ্চিমে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, উত্তরে পশ্চিমবঙ্গ, আসাম, মেঘালয়, পূর্ব সীমান্তে আসাম, ত্রিপুরা ও মিজোরাম, দক্ষিণ পূর্ব সীমান্তে মায়ানমারের রাখাইন রাজ্য এবং দক্ষিণ উপকূলের দিকে বঙ্গোপসাগর অবস্থিত।

Map of Bangladesh
Bangladesh Map ( Image Source – World Atlas )

বিভাগ ও জেলা

বাংলাদেশ একটি জেলা একটি বিভাগের অধিক্ষেত্রভুক্ত। বর্তমানে বাংলাদেশে ৮ টি বিভাগের অন্তর্গত ৬৪টি জেলা অবস্থিত। এই আটটি বিভাগ হল চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, সিলেট, ঢাক,  রংপুর, ময়মনসিংহ।

রাজধানী

বাংলাদেশের রাজধানী এবং বৃহত্তম শহর হল ঢাকা। বাংলাদেশের মধ্যভাগে বুড়িগঙ্গা নদীর উত্তর তীরে অবস্থিত এই মেগা শহরের জনসংখ্যা প্রায় ১ কোটি ৫০ লক্ষ। জনসংখ্যার বিচারে ঢাকা দক্ষিণ এশিয়ার চতুর্থ বৃহত্তম শহর এবং সমগ্র বিশ্বের  নবম  বৃহত্তম শহর।

dhaka picture, bangladesh
ঢাকা শহর

আয়তন

বাংলাদেশের মোট আয়তন ১৪৭৬১০ বর্গ কিলোমিটার /৫৬৯৯৩  বর্গ মাইল। তবে বর্তমানে ভারতের কাছ থেকে পাওয়া ২৮,৪৬৭ বর্গকিলোমিটার এবং মায়ানমারের কাছ থেকে পাওয়া ৭০০০০ বর্গকিলোমিটার এবং সমুদ্রসীমার কারণে বাংলাদেশের বর্তমান আয়তন ২,৪৬,০৩৭ বর্গ কিলোমিটার।

বাংলাদেশের নদী

নদীমাতৃক বাংলাদেশের ভূখণ্ডের উপর দিয়ে বয়ে গেছে ৫৭ টি আন্তর্জাতিক নদী। বাংলাদেশের প্রধান প্রধান নদী গুলি হল পদ্মা, মেঘনা, যমুনা, ব্রহ্মপুত্র, কর্ণফুলি, শীতলক্ষ্যা, গোমতী ইত্যাদি।

বাংলাদেশের মাছ

বাংলাদেশের জাতীয় মাছ ইলিশ। বৈজ্ঞানিক নাম- Tenualosa ilisha, বাঙ্গালীদের কাছে ইলিশ মাছ খুবই জনপ্রিয়। ২০১৭ সালে বাংলাদেশের ইলিশ মাছ ভৌগোলিক নির্দেশক  বা জি আই পণ্য হিসেবে স্বীকৃতি পায়।

hilsa
বাংলাদেশের জাতীয় মাছ ইলিশ

শাসকদল ও মন্ত্রীগণ

বাংলাদেশের দাপ্তরিক প্রধান এর মধ্যে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ তিনি ২৪ মার্চ ২০১৩ তে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দায়িত্ব গ্রহণ করেন ৬ জানুয়ারি ২০০৯ সালে। সংসদে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী ৩০ এপ্রিল, ২০১৩ তে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

ধর্ম

বাংলাদেশে বিভিন্ন ধর্মের মানুষ বসবাস করে। ইসলাম ধর্মের মানুষ আছে শতকরা ৯০.৩৯ শতাংশ, হিন্দু ধর্মের মানুষ ৮.৫৪ শতাংশ, বৌদ্ধ ধর্মের মানুষ আছে ০.৬০ শতাংশ, খ্রিস্টান  ধর্মের মানুষ আছে ০.৩৭ শতাংশ এবং অন্যান্য ০.১৪ শতাংশ।

সংবাদপত্র

বাংলাদেশের কিছু বিখ্যাত বাংলা দৈনিক সংবাদপত্রের হল বাংলাদেশ প্রতিদিন, দৈনিক প্রথম আলো, দৈনিক কালের কণ্ঠ, দৈনিক যুগান্তর, দৈনিক ইত্তেফাক, দৈনিক জনকণ্ঠ, দৈনিক ভোরের কাগজ, দৈনিক সংবাদ, দৈনিক সমকাল, দৈনিক মানবকন্ঠ, দৈনিক আমাদের সময় ইত্যাদি।

পর্যটন

বাংলাদেশের কিছু পর্যটন প্রধান যা বাংলাদেশের অপরুপ শোভাকে তুলে ধরে এমন কিছু স্থান গুলি হল সিলেটের জাফলং, রাতারগুল, সেন্টমাটিন (বাংলাদেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ এটি যা একসময় দারুচিনি দ্বীপ নামে খ্যাত ছিল), খাগড়াছড়ি, লালবাগকেল্লা, ইন্দ্রাকপুর দুর্গ, নীলগিরি, রঙরাং পাহাড় প্রভৃতি।

জাতীয় দিবস

বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবস পালিত হয় ২৬ মার্চ, যা বাংলাদেশের জাতীয় দিবস হিসেবে উল্লেখযোগ্য। ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ রাতে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের জনগণ আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীনতার সংগ্রাম শুরু করে। ২৭ মার্চ জিয়াউর রহমান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের পক্ষে চট্টগ্রামের কালুরঘাট বেতার কেন্দ্র থেকে বাংলাদেশের আপামর জনসাধারণের উদ্দেশ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণের ডাক দেন।

শিল্প

বাংলাদেশের শিল্পের মধ্যে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্প বিশ্বের বৃহত্তম শিল্পের মধ্যে অন্যতম। বর্তমানে এটি বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় রপ্তানিমুখী শিল্পখাত। বাংলাদেশ স্বীকার করেছে যে তৈরি পোশাক শিল্পের ভবিষ্যৎ এর ওপর দেশের অর্থনৈতিক নিরাপত্তা নির্ভর করছে।

আমদানি ও রপ্তানি

বাংলাদেশের প্রধান আমদানি ও রপ্তানি পণ্য গুলি হল বিভিন্ন রকম যন্ত্রপাতি ও শিল্পের কাঁচামাল, খাদ্যপণ্য, পেট্রোলিয়াম ও পেট্রোলিয়াম জাতীয় দ্রব্য প্রভৃতি আমদানি দ্রব্য এবং হিমায়িত খাদ্য, তৈরি পোশাক, কাঁচা পাট, পাটজাত দ্রব্য, চামড়া, চা ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য রপ্তানি দ্রব্য।

Bangladesh business
Cloth Business in Bangladesh

জাতীয় সংগীত

বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত হলো রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘আমার সোনার বাংলা’। ১৯০৫ খ্রিস্টাব্দে বঙ্গভঙ্গ আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে রচিত এই গানটি ১৯৭২ এর ১৩ ই জানুয়ারি মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠকে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত হিসেবে নির্বাচিত হয়।

পড়ে নিন কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কালজয়ী বাণীগুলি ( Quotes by Rabindranath Tagore Collection )

খাবার

বাংলাদেশের কিছু বিখ্যাত খাবারের নাম হলো বিরিয়ানি, বাকরখানি, ইলিশ মাছের বিভিন্ন পদ, মেজবানি গরুর মাংস, ভুনা খিচুড়ি, মাংসের কালা ভুনা, চিংড়ি মাছের মালাইকারি, বগুড়ার দই, পোড়াবাড়ির চমচম, কুমিল্লার রসমালাই, শ্রীমঙ্গলের সাত রঙের চা ইত্যাদি।

সামাজিক অনুষ্ঠান

বাংলাদেশে বিভিন্ন ধর্মের সামাজিক অনুষ্ঠান পালন করা হয়। ঈদুল ফিতর, ঈদুল আজহা, হিন্দু সম্প্রদায়ের দুর্গাপূজা, বৌদ্ধদের বুদ্ধপূর্ণিমা, খ্রিস্টানদের বড়দিন ছাড়াও সার্বজনীন উৎসব হিসেবে পহেলা বৈশাখ, নবান্ন, পৌষ পার্বণ ইত্যাদি উৎসব পালন করা হয়।

খেলা

ক্রিকেট ও ফুটবল বাংলাদেশের জনপ্রিয় খেলা হলেও কাবাডি বাংলাদেশের জাতীয় খেলা। অন্যান্য খেলা গুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য হকি, হ্যান্ডবিল, সাঁতার, দাবা ইত্যাদি।

বাংলাদেশের ক্রিকেট খেলোয়াড়
Shakib al Hasan

পোষাক

বাংলাদেশের নারীদের প্রধান পোষাক শাড়ি, পুরুষদের প্রধান পোষাক লুঙ্গি, তবে মেয়েদের ক্ষেত্রে সালোয়ার-কামিজ, জিন্স- কামিজ, ছেলেদের পাঞ্জাবি পায়জামা এবং শার্ট প্যান্ট এর প্রচলন রয়েছে।

পাখি

বাংলাদেশের জাতীয় পাখি দোয়েল, বনে জঙ্গলে, পাহাড়ে, শহরে সর্বত্রই দেখা যায় এই পাখিটি। গড়ে ১৫ বছর আয়ু এই পাখির।

বৃক্ষ

বাংলাদেশের জাতীয় বৃক্ষ আম গাছ। ২০১৯ সালে মন্ত্রিসভার বৈঠকে আম গাছকে জাতীয় বৃক্ষের মর্যাদা দেওয়া হয়। বাংলাদেশের সর্বত্র জনপ্রিয় আম গাছের প্রাপ্যতা বর্তমান, তাছাড়া এই গাছের কাঠের উপযোগিতা এবং আমবাগানের ঐতিহাসিক দিক বিবেচনা করে আম গাছকে জাতীয় বৃক্ষ হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

পতাকা

বাংলাদেশের  জাতীয় পতাকা  যা লাল-সবুজ পতাকা নামে পরিচিত, ১৯৭২ সালের ১৭ জানুয়ারি সরকারিভাবে গৃহীত হয়েছি।১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় ব্যবহৃত পতাকার লাল বৃত্তের ভেতরে হলুদ মানচিত্র ছিল।১৯৭২ সালে মুছে ফেলা হয় মানচিত্রটি। ১৯৭২ সাল থেকে গৃহীত পতাকাটিতে সবুজ ক্ষেত্রের উপর একটি লাল বৃত্ত দিয়ে গঠিত, লাল বৃওটি বাংলায় উদিয়মান সূর্য  এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদদের প্রতীক বহন করে, পতাকার সবুজ ক্ষেত্রটি বাংলাদেশের বিস্তৃত সতেজভূমির প্রতীক।

বাংলাদেশের পতাকা
বাংলাদেশের পতাকা

ফুল

শাপলা ( Nympha eaceac) বাংলাদেশের জাতীয় ফুল। শাপলা  পুষ্প বৃক্ষ পরিবারের একপ্রকার জলজ উদ্ভিদ, শাপলা প্রধানত হাওর-বিল দীঘিতে এটি বেশি ফোটে।

প্রধান ইংরেজি সংবাদপত্র গুলি

বাংলাদেশের প্রধান প্রধান ইংরেজি সংবাদপত্র গুলি হল ‘দ্য ডেইলি স্টার’, ‘ফাইনান্সিয়াল এক্সপ্রেস’,  ‘দি এশিয়ান এজ’ দ্য ডেইলি অবজার্ভার, ঢাকা ট্রিবিউন, নিউ এজ ইত্যাদি।

ভাষা

বাংলাদেশের রাষ্ট্রভাষা ও জাতীয় ভাষা হল বাংলা।

ফল

 বাংলাদেশের জাতীয় ফল কাঁঠাল।

জাতীয় পশু

বাংলাদেশের জাতীয় পশু রয়েল বেঙ্গল টাইগার।

জাতীয় প্রতীক

বাংলাদেশের জাতীয় প্রতীকের কেন্দ্রে রয়েছে বাংলাদেশের জাতীয় ফুল শাপলা, আর তাকে বেষ্টন করে আছে ধানের দুটি শীষ, পাটগাছের পরস্পর যুক্ত তিনটি পাতা রয়েছে এবং পাতার উভয় পাশে  রয়েছে মোট চারটি তারকা যা বাংলাদেশের সংবিধানের চারটি মূলনীতি নির্দেশ করে। পানি, ধান ও পাট হলো বাংলাদেশের নিসর্গ ও অর্থনীতির প্রতীক এবং শাপলা হলো সৌন্দর্য ও সুরুচির প্রতীক। তারকাগুলোতে ব্যক্ত হয়েছে জাতির লক্ষ্য ও উচ্চাকাঙ্ক্ষা। এই জাতীয় প্রতীকের ডিজাইনার পটুয়া কামরুল হাসান।

জাতীয় কবি

বাংলাদেশের জাতীয় কবি বলা হয় কাজী নজরুল ইসলামকে, বাংলাদেশের কয়েকজন বিখ্যাত সাহিত্যিক হলেন আল মাহমুদ, হুমায়ূন আহমেদ, হাসান আজিজুল হক, সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ, সেলিনা হোসেন, শামসুর রহমান, নির্মলেন্দু গুণ প্রমূখ।

kaji najrul bangladesh information
কাজী নজরুল ইসলাম

কাজী নজরুল ইসলামের লেখা কিছু জীবনের বাণী

অস্কার

প্রথম বাংলাদেশি ব্যক্তি হিসেবে ২০০৭ সালে অস্কার পুরস্কার জেতেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশী সফটওয়্যার প্রকৌশলী ও অ্যানিমেশন বিশেষজ্ঞ নাফিস বিন জাফর। হলিউডের পাইরেটস অফ দ্য ক্যারিবিয়ান অ্যাট ওয়াল্ডস এন্ড চলচ্চিত্রে ফ্লইড অ্যানিমেশনের জন্য সায়েন্টিফিক এন্ড টেকনিক্যাল বিভাগের ডিজিটাল ডোমেইন নামে ভিজুয়াল ইফেক্টস ডেভেলপার কোম্পানির দুই সহকর্মী ডাগ রোবেল ও রিয়ো সাকাগুচির সাথে এই পুরস্কার জেতেন নাফিস বিন জাফর।

Frequently Asked Questions

বাংলাদেশের জাতীয় ফুল কি ?

শাপলা ( Nympha eaceac) বাংলাদেশের জাতীয় ফুল।

বাংলাদেশের জাতীয় ফল কি ?

কাঁঠাল

বাংলাদেশের জাতীয় পশু কি ?

রয়েল বেঙ্গল টাইগার

বাংলাদেশের জাতীয় কবি কে ?

কাজী নজরুল ইসলাম

বাংলাদেশের জাতীয় বৃক্ষের নাম কি?

বাংলাদেশের জাতীয় গাছ হলো আম গাছ

বাংলাদেশের জাতীয় প্রতীক কি?

বাংলাদেশের জাতীয় প্রতীক

বাংলাদেশের জাতীয় খেলা কোনটি?

বাংলাদেশের জাতীয় খেলা হলো কাবাডি বা হাডুডু

বাংলাদেশের জাতীয় পাখি কি?

দোয়েল ( Oriental magpie-robin )

বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত কি?

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা আমার সোনার বাংলা

প্রথম বাংলাদেশী অস্কার বিজেতা কে ?

নাফিস বিন জাফর

বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত কে লিখেছেন?

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার ডিজাইনার কে?

বাংলাদেশের পতাকার প্রধান ডিজাইনার শিবনারায়ন দাস

বাংলাদেশ এর বিভিন্ন তথ্যাদি নিয়ে ভিডিও

Contents

Recent Content

link to পুজোর আগেই মাত্র ৩৯ টাকায় শুরু হয়ে যাচ্ছে হেরিটেজ জয় রাইডে কলকাতা ভ্রমণ

পুজোর আগেই মাত্র ৩৯ টাকায় শুরু হয়ে যাচ্ছে হেরিটেজ জয় রাইডে কলকাতা ভ্রমণ

শহর জুড়ে উৎসবের মরশুম, সামনেই বাঙালির প্রাণের উৎসব দুর্গাপুজো। আর পুজোর আগেই হেরিটেজ জয় রাইডে কলকাতা ভ্রমণ শুরু হতে চলেছে। ১ অক্টোবর থেকে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য পরিবহণ দফতরের উদ্যোগে গঙ্গাবক্ষে শুরু হয়ে যাচ্ছে দেড় ঘন্টার  জয় রাইড৷ কলকাতার বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান দেখতে দেখতে মায়াবী যাত্রাপথে বেজে চলবে রবীন্দ্রসঙ্গীত। এই জয় রাইডে মনোরম যাত্রা উপভোগ করতে খরচ মাত্র ৩৯ টাকা।  […]
link to উত্তরপ্রদেশে গণধর্ষণে মৃত তরুণীর দেহ গভীর রাতে জোর করে সৎকার করেছে পুলিশ ,পরিবারের দাবি ঘিরে বিক্ষোভ

উত্তরপ্রদেশে গণধর্ষণে মৃত তরুণীর দেহ গভীর রাতে জোর করে সৎকার করেছে পুলিশ ,পরিবারের দাবি ঘিরে বিক্ষোভ

উত্তর প্রদেশে গণধর্ষণে মৃত নির্যাতিতার সৎকার ঘিরে চাঞ্চল্য।মৃতদেহ গ্রামে নিয়ে যাওয়া হলেও পরিবারের আবেদন সত্বেও বাড়িতে না নিয়ে গভীর রাতে জোর করেই সৎকারের অভিযোগে কাঠগড়ায় পুলিশ।নির্যাতিতার পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে তাঁরা নির্যাতিতা তরুণীর দেহ বাড়িতে আনতে চাইলেও পুলিশ আপত্তি জানায়।তবে এই অভিযোগকে অস্বীকার করে হাথরসের মহকুমা শাসক জানিয়েছে মৃতার পরিবারের কোনো সদস্য সেই সময় উপস্থিত […]