সনিয়া গান্ধীকে সভাপতি পদে থাকতে আর্জি জানালেন মনমোহন সিং


রবিবার রাতেই দ্রুত গতিতে ছড়িয়ে পড়ে একটি খবর, সেই খবরটি হল সনিয়া গান্ধী সোমবারের কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে দল নেতাদের জানিয়ে দেবেন, খুঁজে নেওয়া হোক অন্য কাউকে তিনি আর সভানেত্রী থাকবেন না।

সনিয়া গান্ধী, মনমোহন সিং

সিডব্লিউসি বৈঠকে যেমন্টা ভাবা হয়েছিল ঠিক তেমনটাই হয়, কিন্তু সনিয়া গান্ধির এমন বক্তব্য রাখার পরই প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং আবেদন করেন তাকে সভানেত্রী পদে বজায় থাকার জন্য। রাজ্যসভার সাংসদ একে অ্যান্টনি বক্তব্য রাখেন সনিয়ার গান্ধীর স্থানে সভাপতির দায়িত্ব নিক রাহুল গান্ধী।

শনিবার রাতে খবর পাওয়া যায় যে কংগ্রেসের বেশ কিছু নেতা দলের স্বার্থে তিন সপ্তাহ আগে সনিয়া গান্ধীকে চিঠি লিখে জানান সভাপতি পদ ছেড়ে দেওয়ার জন্য এবং এমন কাউকে কংগ্রেস সভাপতি করা হোক যাঁকে সবসময় দেশের মানুষ দেখতে পাবে।

এদিন জরুরি ভিত্তিতে ডাকা ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে সনিয়া গান্ধী, কেসি বেণুগোপালের পর ভার্চুয়াল বৈঠকে তৃতীয় স্থানে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী আর্জি জানান সনিয়া গান্ধী যাতে দায়িত্ব পদ থেকে ইস্তফা না দেন, চিঠির প্রসঙ্গ বাদ দিয়ে সেই ঘটনাকে ‘দুর্ভাগ্যজনক’ বলে মন্তব্য করেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং।

একে অ্যান্টনি এদিন বলেন চিঠির সংখ্যা নয় বরং সনিয়া গান্ধী দলের জন্য যা যা করেছেন সেই কথা স্মরণ করে তিনি বলেন, সনিয়ার পরবর্তীতে যদি কাউকে সভাপতি পদ দেওয়া যায় তাহলে একমাত্র তা রাহুল গান্ধীকেই দেওয়া হোক।

সোমবার কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে এইসব চিঠি প্রসঙ্গে তীব্র সমালোচনা করে রাহুল গান্ধী বলেন সনিয়া গান্ধী অসুস্থ থাকাকালীন সময়ে এই চিঠি পাঠানো হয়।
ঘটনায় বিজেপির যোগ আছে বলে মন্তব্য করেন রাহুল গান্ধী। এই ঘটনায় কপিল সিব্বল, শশী তারুরের মতো শীর্ষ কংগ্রেস নেতাদের যোগ আছে বলে জানান তিনি।

Close

Recent Posts