ছোটদের মধ্যে অ্যান্টিবডি ও ভাইরাস একই সাথে দেখা দেওয়ায় বাড়ছে চিন্তা


সাধারণ ভাইরাস আর অ্যান্টিবডি শরীরে একসাথে থাকতে না পারলেও কোভিড ভাইরাস কিন্তু অ্যান্টিবডির সাথেও থাকছে। সচরাচর একবার শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরী হয়ে গেলে ভাইরাস সংক্রমণের সম্ভাবনা থাকে না। তবে করোনা ভাইরাসের ক্ষেত্রে দেখা গেছে অনেক শিশুর শরীরে যথেষ্ট পরিমাণ অ্যান্টিবডি থাকার পরও ভাইরাস অন্যকে সংক্রমিত করতে সক্ষম।

ছোটদের মধ্যে অ্যান্টিবডি ও ভাইরাস একই সাথে দেখা দেওয়ায় বাড়ছে চিন্তা

করোনা ভাইরাসের উপসর্গ প্রথম থেকে বদলে যাচ্ছে,এই ভাইরাসের বৈশিষ্টতে দিনে দিনে অনেক পরিবর্তন লক্ষ করা গেছে৷
সম্প্রতি একটি মেডিকেল পরীক্ষায় দেখা গেছে ছোটদের মধ্যে যথেষ্ট অ্যান্টিবডির পাশাপাশি ভাইরাসও আছে,যা অন্যকে সংক্রমিত করতে পারে। কোনো শিশু করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার পরও তার শরীরে ভাইরাসের উপস্থিতি মিলছে যা শিশুটির পক্ষেও ঝুঁকির আবার অন্যের পক্ষেও।

বৃহস্পতিবার ‘জার্নাল অফ পেডিয়াট্রিকস’ এ প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয় ওয়াশিংটন ডিসির চিলড্রেনস ন্যাশনাল হসপিটালে ডাক্তার রা করোনায় আক্রান্ত ৬৩৬৯ শিশুর ওপর সমীক্ষা চালায়। যেখানে দেখা যাচ্ছে শিশুদের ইমিউন রেসপন্স তাদের নিজেদের সুরক্ষার ক্ষেত্রেও যথেষ্ট নয়। ২১৫ জন শিশুর অ্যান্টিবডি টেস্ট করে দেখা যায় ৩৩ জন শিশুর শরীরে অ্যান্টিবডি ও ভাইরাস আছে একই সাথে।

তাই এই সময় ছোটদের জন্য আরও সতর্কতা বাড়ানো দরকার। কিন্ডারগার্টেন ও প্রাইমারি স্কুল খোলা অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ, কারণ স্কুলে ছোটদের সমস্ত বিধি নিষেধ মেনে সতর্কতা অবলম্বন করতে না পারলে বহু শিশু এবং তাদের থেকে পরিবারের বাকিদের সংক্রমণের ভয় থাকবে।

Close

Recent Posts