করোনা অতিমারির জেরে এবছর বন্ধ থাকছে পৌষমেলা, তবে পৌষ উৎসব পালন হবে


 
সোমবার বিশ্বভারতীর কোর্ট কমিটির অনলাইন বৈঠকে ৯০ জন সদস্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ৭০জন। বৈঠকে সকলের সম্মতিতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় করোনা অতিমারির কারণে বন্ধ থাকবে পৌষ মেলা।করোনাকালীন আবহে এবছর  শান্তিনিকেতনের পৌষ মেলা বন্ধ থাকলেও পৌষ উৎসব পালিত হবে।

এদিন বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত, সাংসদ সুদীপ মুখোপাধ্যায়, প্রাক্তন বিচারপতি শখারাম সিং যাদব, সঞ্জয় বুধিয়া, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী এবং আরও অনেকে। 
এই সিদ্ধান্তের পর বোলপুর ব্যবসায়ী সমিতির মতেগত অগাস্ট মাসে যখন মেলার মাঠে পাঁচিল দেওয়া হয় তখন মাঠ ঘেরা নিয়ে প্রতিবাদের সময়েই তারা বুঝেছিলেন এবছর কর্তৃপক্ষ মেলা বন্ধ রাখার পরিকল্পনা করছে। 


গত অক্টোবর মাসে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী সহ ১৩ জন করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়। পৌষ মেলা বন্ধ থাকলেও সমস্ত বিধি মেনে কিছু সংখক  মানুষের উপস্থিতিতে বিশ্বভারতীতে পৌষ উৎসব পালিত হবে।

পৌষমেলা চলছে বিগত ১২৬ বছর ধরে, এই ১২৬ বছরে দু’বার পৌষমেলা বন্ধ ছিল। একবার ১৯৪৩ সালে দুর্ভিক্ষের জন্য এবং ১৯৪৬ সালে দাঙ্গার কারণে বন্ধ থেকেছে মেলা।তবে এই দুইবছরেও মেলা বন্ধ থাকলেও পৌষ উৎসব পালন হয়েছে। ২০২০ সালে করোনা অতিমারির জেরে তৃতীয়বার বন্ধ থাকবে পৌষ মেলা। আশ্রমিক থেকে ছাত্র ছাত্রী সকলেই সম্মতি জানিয়েছেন এই সিদ্ধান্তে।

Close

Recent Posts