সাত মাস পর চালু হল লোকাল ট্রেন পরিষেবা, সকালে ঠিক থাকলেও অফিস টাইম থেকে দেখা যায় উপচে পড়া ভিড়


অনেক মাস অপেক্ষার পর,বিক্ষোভের পর অবশেষে বুধবার থেকে রাজ্যের লোকাল ট্রেন পরিষেবা শুরু হল। আজ সকাল থেকেই স্টেশনগুলিতে যাত্রী ভিড় বেশ ভালোই ছিল। টিকিট কাউন্টারেও ছিল বিশাল লাইন। কোভিডের নির্দেশিকা মেনে আজ ভোরে দীর্ঘ সাত মাস পর শুরু হয় লোকাল ট্রেন পরিষেবা। মঙ্গলবার বিভিন্ন স্টেশনে যাত্রীদের স্টেশনে ঢোকা, বেরোনোর রাস্তায় স্যানিটাইজেশনের ব্যবস্থা, এবং বাকি সব কিছু খতিয়ে দেখা হয়। 

সকালে বিধি মেনেই যাত্রীদের দেখা যাচ্ছিল। টিকিট কাউন্টারের লম্বা লাইনে বজায় ছিল দূরত্ববিধি। প্রত্যেক যাত্রীর মুখে ছিল মাস্ক, স্টেশনে ঢোকার আগে প্রত্যেকের থার্মাল স্ক্রিনিং করা  হয়। তবে অফিস টাইম থেকে ভিড় বাড়তে শুরু করে। শিয়ালদহ স্টেশনে ভিড় হয় চোখে পড়ার মতো।সকালে ট্রেনের ভেতরেও স্বাস্থ্য বিধি মানা হচ্ছিল, রেল পুলিশও ভেতরে ছিল নজর রাখার জন্য। তবে বেলার দিকে এই দৃশ্য পালটে যায়।ট্রেনে দেখা গেল পুরোনো ছবি, ট্রেনে উপচে পড়া ভিড়ে  গাদাগাদি করে মানুষ উঠছেন। 
টিকিট কাউন্টারের সামনে  লম্বা লাইনে দূরত্ববিধি না মেনেই টিকিট কাটতে ব্যস্ত মানুষ। অনেকের মুখেই নেই মাস্ক।  শিয়ালদহ থেকে আজ সকালে  নৈহাটি, ব্যারাকপুর, রাণাঘাট, কৃষ্ণনগর যাওয়ার লোকাল ট্রেন ছেড়েছে , আবার  বজবজ, ডায়মন্ড হারবার, লক্ষীকান্তপুরে যাওয়ার ট্রেনও ছেড়েছে।
এই অবস্থায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ছড়ানো থেকে যাত্রী ভিড় আয়ত্তে এনে ট্রেন চালানো কঠিন কাজ। যাত্রীদের মত চাহিদা অনেক বেশি, তাই ট্রেনের সংখ্যা না বাড়ালে ট্রেনে গাদাগাদি করেই মানুষ উঠবে, যা সংক্রমণ  আরও বাড়িয়ে তুলবে।

Viral Telegram Channel 🔥

Recent Posts