কল্পতরু উৎসবের আগেই চালু হতে পারে দক্ষিণেশ্বর মেট্রো


পরিকল্পনা অনুযায়ী সমস্ত কিছু ঠিক থাকলে কল্পতরু উৎসবের আগেই শুরু হয়ে যাবে দক্ষিণেশ্বর মেট্রো স্টেশন। নতুন বছরের প্রথম দিনের আগেই খুলে যেতে পারে  দক্ষিণেশ্বর মেট্রো স্টেশন। দক্ষিণেশ্বর মেট্রো স্টেশন নির্মাণের কাজ হয়ে গেছে। বরানগর মেট্রো স্টেশনেও সাজানোর কাজ শেষের দিকেই, নোয়াপাড়া থেকে দক্ষিণেশ্বরের মধ্যে দ্রুতগতিতে কাজ চলছে। প্রতিদিন কতটা কাজ কত সময়ে হচ্ছে, কেমন হচ্ছে সমস্তটা খতিয়ে দেখছেন  আর ভি এন এল ও মেট্রো রেলের আধিকারিকরা। 


দক্ষিণেশ্বর মন্দিরের আদলেই গড়ে তোলা হয়েছে মেট্রো স্টেশন। দক্ষিণেশ্বর স্টেশন থেকে আলাদা রাস্তা থাকবে মেট্রো চড়ার জন্য।  বেলঘড়িয়া এক্সপ্রেসওয়ের উপর হচ্ছে বরানগর স্টেশন। নোয়াপাড়া থেকে দক্ষিণেশ্বরের মাঝে দুরত্ব হচ্ছে মাত্র ৪.১ কিলোমিটার, মাঝে থাকছে একটি স্টেশন। নির্মাণের কাজ পুরোপুরি শেষ হয়ে গেলেও সিগন্যাল-টেলিকমিউনিকেনর কাজ বাকি আছে, যা সম্পূর্ণ হয়ে গেলেও সি আর এসের কাছে জানানো হবে আবেদন। 

নির্মাণ কাজ প্রায় শেষ স্টেশন ভবনের, এসক্যালেটর বসানো থেকে প্ল্যাটফর্ম বোর্ড বসে গেছে।  এটিভিএম বসানোর কাজ এবং টিকিট কাউন্টার মেশিন বসানোর কাজ এখনো বাকি আছে, যা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব করার তোড়জোড় চলছে। কিছু বিশেষ স্টেশনে ভিড় বাড়তে পারে তাই স্টেশন প্রশস্ত করা হয়েছে।বরানগর অংশে এখনও বেশ কিছু কাজ বাকি, যেমন ট্র‍্যাক বসিয়ে তা চার্জ করে বারবার পরীক্ষা করে নেওয়া  হচ্ছে।সুবিধা যেমন আছে তেমন কিছু সমস্যাও আছে। যেমন   নোয়াপাড়া কারশেড থেকে ট্রেন আসলে তবেই মেট্রো পাওয়া যাবে, কারণ দক্ষিণেশ্বরে মেলেনি কারশেড করার জায়গা। 


নোয়াপাড়া থেকে যাত্রী ভর্তি মেট্রো প্ল্যাটফর্মে এসে যাত্রী নামিয়ে বরানগরের দিকে যাবে, সেখানে  ক্রসওভার থেকে লাইন বদল করে  দক্ষিণেশ্বরের অন্য প্ল্যাটফর্মে আসবে ট্রেন যার ফলে ট্রেন ঢোকার পাশাপাশি বেরোনো অনেক বেশ সময় সাপেক্ষ।কালী পুজোয় এই মেট্রো স্টেশন চালুর কথা থাকলেও ইউরোপ থেকে টিপিডাব্লুএস মেশিন, ফ্ল্যাপ গেট না দেড়িতে আসায় স্টেশন চালু হতে দেড়ি হয়।তবে আর বেশি দেরি নেই, আর কিছুদিনের মধ্যেই যাত্রা শুরু করে দেবে  কলকাতার এই নতুন মেট্রো স্টেশন।

Recent Content