২.৮ কিলোমিটার দীর্ঘ ট্রেন বানিয়ে রেকর্ড ভারতীয় রেলের ! এটাই কি পৃথিবীর সবচেয়ে লম্বা ট্রেন ? – জেনে নিন ~ ( India’s Record Breaking Train All Details )


আরও একটি অসামান্য রেকর্ড গড়ল ভারতীয় রেল। 3টি ট্রেনের সমান দীর্ঘ যা প্রায় ২.৮ কিলোমিটার’ তা চালিয়ে নয়া নজির তৈরি করল দক্ষিণ-পূর্ব-মধ্য রেলওয়ে জোন ৷ বিশালাকৃতি এ ট্রেনটি যার নাম দেওয়া হয়েছে ‘শেষনাগ যা বানাতে একসঙ্গে একত্রিত করে জুড়ে দেওয়া হয়েছিল চারটি খালি বিওএক্সএন র‌েক । এই অভিনব ট্রেনটি ভারতীয় রেলপথে তো বটেই ; সমগ্র বিশ্বেই সম্ভবত এখনও পর্যন্ত চলা দীর্ঘতম ট্রেন। চারটি বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভ ইঞ্জিনের মাধ্যমে ইতিমধ্যেই সফলভাবে নিজের যাত্রা শুরু করেছে এই সুদীর্ঘ মালবাহী ট্রেন ‘শেষনাগ’।

seshnag-indias-longest-train

এই বিশেষ ট্রেনটির নামকরণ করা হয় পুরাণের সেই সাত মাথা সাপ, ‘শেষ নাগে’র নামে যার উপরে বিশ্রাম নিয়েছিলেন স্বয়ং ভগবান শ্রী বিষ্ণু।
ভারতীয় রেলের এই কৃতিত্বের ফলে আরও দ্রুত ও সহজভাবে এক জায়গায় থেকে অন্য জায়গায় মাল স্থানান্তর করা সম্ভব হবে বলে মনে করা হচ্ছে । এই অভূতপূর্ব এবং অবিশ্বাস্য ঘটনাটি ঘটেছে ভারতীয় রেলের দক্ষিণ-পূর্ব – মধ্য রেল জোনের নাগপুর এবং কোরবা-র মধ্যে। ২.৮ কিলোমিটার লম্বা ট্রেনটিতে রয়েছে ২৫১ টি ওয়াগন!!

এটাই কি পৃথিবীর সবচেয়ে লম্বা ট্রেন ? শেষ অব্দি পড়ুন !

sheshnag_freight_train

করোনাভাইরাসের মতন মহামারির কারণে গত বছর অর্থাৎ ২০২০ সাল থেকেই বেশিরভাগ যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচলে স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়েছে । এমত অবস্থায় ভারতীয় রেল তাই রেলপথের জালে মালবাহী ট্রেনের চলাচলকেই অগ্রাধিকার দিয়ে আসছে। বিভিন্ন সুবিধার কথা মাথায় রেখে একসঙ্গে একাধিক মালবাহী রেকগুলি স্থানান্তরিত করার চেষ্টা করা হচ্ছিল যাতে পরিবহনের সময় কম লাগবে ।

গত ৩০ জুন রেলমন্ত্রক ‘সুপার অ্যানাকোন্ডা’ নামক একটি ১৭৭ কোচ বিশিষ্ট মালবাহী ট্রেন যা কিনা বিলাসপুর থেকে চক্রধরপুরে ১৫০০০ টনেরও বেশি মাল নিয়ে গিয়েছিল । সেটি চলেছিল দক্ষিণ-পূর্ব – মধ্য রেল জোনের বিলাসপুর বিভাগের উদ্যোগে। তবে এবার ‘শেষনাগ’ ছাপিয়ে গেল ‘সুপার অ্যানাকোন্ডা’কে! ভারতীয় রেলের ইতিহাসে এ এক অবিস্মরণীয় কীর্তি ।

এটাই কি পৃথিবীর সবচেয়ে লম্বা ট্রেন ?

আজ্ঞে না। পৃথিবীর সবচেয়ে লম্বা ট্রেনটি সম্পর্কে নিচে রইলো ইনফরমেশন, আর এরকমই ইনফরমেশন এর জন্যে এই ইনস্টাগ্রাম পেজটি ফলো করতে পারেন –

Close

Recent Posts